1. admin@shikkhasamachar.com : admin :
বুধবার, ২৭ অক্টোবর ২০২১, ১০:৫৩ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
পিরোজপুরের কদমতলা ইউ’পি চেয়ারম্যানের মুক্তির দাবীতে এলাকাবাসীর মানববন্ধন ৪৩তম বিসিএস পরীক্ষা সারাদেশের সাথে একযোগে ময়মনসিংহেও অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর ৭৫ তম জন্মদিন উপলক্ষে নলছিটিতে প্রতিবন্ধীদের মাঝে হুইল চেয়ার বিতরণ – শিক্ষাসমাচার ব্যক্তিত্বহীন শিক্ষক : দায় কার ? শিক্ষাসমাচার নলছিটিতে প্রতিবন্ধীর মাঝে হুইল চেয়ার বিতরণ – শিক্ষাসমাচার নেত্রকোণা সীমান্তে মোটরসাইকেল ও ভারতীয় মদ জব্দ আটক ২ ভান্ডারিয়ায় জনপ্রতিনিধিদের সাথে মতবিনিময় শেষে মাছের পোনা অবমুক্ত করেন সাংসদ আনোয়ার হোসেন মঞ্জু জেলা প্রশাসনের দেয়া ফ্রি মাস্ক শিক্ষার্থীদের কাছে বিক্রি, অভিভাবকদের অসন্তোষ কুমিল্লায় এসএসসি ১৪ ও এইচএসসি ১৬ ব্যাচের বন্ধুদের মিলন মেলা অনুষ্ঠিত – শিক্ষাসমাচার পরিকল্পিত ভাবে কাজ করে নতুন প্রজন্মের জন্য কর্মসংস্থান তৈরি করলে বেকারত্ব দূর হবে- আনোয়ার হোসেন মঞ্জু

করোনা কালে শিক্ষার্থীদের কি করা উচিৎ? – শিক্ষা সমাচার

সমাচার মুক্তমত
  • আপডেট সময় : শুক্রবার, ৮ জানুয়ারি, ২০২১
  • ২৪৩ বার পঠিত

নিয়মিত শরীরচর্চা এবং মেডিটেশন: বাসায় বসেই ইউটিউব দেখে ফ্রি হ্যান্ড এক্সারসাইজ করার মাধ্যমে নিজেকে সুস্থ-সমৃদ্ধ রাখা। মানসিক প্রশান্তির জন্য নিয়মিত নির্দিষ্ট একটা সময়ে মেডিটেশন করা। শুক্রবার (৮ জানুয়ারি) ইত্তেফাক প্রত্রিকায় প্রকাশিতিএক চিঠিতে এ তথ্য জানা যায়।

চিঠিতে আরও জানা যায়, অবসরের শ্রেষ্ঠ সঙ্গী বই: এই সময়ে সারা দিন বাসায় বসে বিরক্ত হওয়ার চেয়ে সোশ্যাল মিডিয়া/ গেইম খেলে অযৌক্তিক সময় না কাটিয়ে কবিতা, উপন্যাস, গল্প, থ্রিলার বা গোয়েন্দা গল্পের বই পড়ে নিজেকে একটা চমত্কার মুহূর্ত উপহার দেওয়া যায়।

পরিবারকে সময় দেওয়া: আমরা স্বাভাবিক সময়ে এতটা সময় বাসায় থাকতে পারি না। তাই এই সময়টার সুবাদে গড়ে উঠুক সবাইকে নিয়ে এক সুন্দর মুহূর্ত। একে-অপরকে আরো ভালো করে জানা হোক।

নিজেকে জানা: আমরা নানান ব্যস্ততার কারণে সত্যি বলতে কারোরই নিজেকে ঠিক ভালো করে জানা হয় না। আমি কী চাই, আমি কী ভালো পারি, আমার আগ্রহ আসলে সবচেয়ে বেশি কিসে আরো কত কী! এই সময়টাতে নিজের ভালো দিকগুলো বের করে সেগুলোকে আরো শাণিত করে কাজে লাগানো যায় আর বাজে অভ্যাসগুলো ধীরে ধীরে বর্জন করা যায়।

নিয়মিত পড়া: অনলাইন ক্লাসের সঙ্গে সঙ্গে নিয়মিত পড়াশোনাও চালিয়ে যেতে হবে। প্রতিষ্ঠান খোলার অপেক্ষায় বসে থাকলে হবে না। তাই নিয়ম করে সময় ভাগ করে একটা রুটিন বানিয়ে সেই রুটিন অনুযায়ী চলতে হবে। এভাবে পড়ার চাপও অনেক কমিয়ে আনা যায়।

পাঠক্রম বহির্ভূত কার্যক্রম: কেউ ভালো গান গায়, কেউ আবার খুব সুন্দর লেখে, কেউ আবৃত্তি করে, কেউ অভিনয় করে, কেউ নাচে, কেউ আবার ভিন্ন কিছু বানাতে পছন্দ করে। এই সময়টা সাহিত্য-সংস্কৃতি আর এসব কার্যক্রমের সঙ্গে নিজেকে ভালো করে জড়ানোর একটা উপযুক্ত সময়। এভাবে দক্ষতা সমৃদ্ধি হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে নিজেকেও উন্নত করা যায়।

লেখক: আলতাফ কবির নিলয়, ইন্দিরা রোড, ফার্মগেট, ঢাকা ১২১৫
আপনিও আপনার মতামত জানাতে পারেন।
নিউজ টি শেয়ার করুন।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর